• সোম. মার্চ ৮, ২০২১

দৈনিক লাল সবুজ

আগামীর পথ চলা এক সাথে

ধাপেরহাট মাদরাসা থেকে নিখোঁজ হওয়া ৩ ছাত্রের

ধাপেরহাট মাদরাসা থেকে নিখোঁজ হওয়া ৩ ছাত্রের
দুই দিনেও সন্ধান মেলেনি,স্ব-স্ব পরিবারে উদ্দ্যেগ উৎকন্ঠা সহ চলছে নানা মুখী গুন্জন।
আমিনুল ইসলাম ঃ
গাইবান্ধার সাদুল্লাপুর উপজেলার ধাপেরহাট ইউনিয়নের পীরেরহাটে অবস্থিত মরহুম আমজাদ হোসেন নূরানী হাফিজিয়া মাদরাসা ও এতিমখানার তিনজন শিক্ষার্থী গত ১৪ ফেব্রæয়ারী ভোরে মাদরাসা থেকে নিখোঁজ হয়।
অনেক খোঁজা খুজি করেও তাদের সন্ধান মিলছেনা।
গাইবান্ধার সাদুল্লাপুর উপজেলার ধাপেরহাট ইউনিয়নের পীরেরহাটে অবস্থিত মরহুম আমজাদ হোসেন নূরানী হাফিজিয়া মাদরাসা ও এতিমখানার তিনজন শিক্ষার্থী গত ১৪ ফেব্রæয়ারী ভোরে মাদরাসা
গাইবান্ধার সাদুল্লাপুর উপজেলার ধাপেরহাট ইউনিয়নের পীরেরহাটে অবস্থিত মরহুম আমজাদ হোসেন নূরানী হাফিজিয়া মাদরাসা ও এতিমখানার তিনজন শিক্ষার্থী গত ১৪ ফেব্রæয়ারী ভোরে মাদরাসা
নিখোঁজ হওয়া শিক্ষার্থীরা হলেন, ধাপেরহাট তিলকপাড়া গ্রামের রশিদুল ইসলামের পুত্র রবিউল ইসলাম (১২) একই গ্রামের রেজাউল করিমের পুত্র শিপন মিয়া (১১) ও পাশ্ববর্তী পলাশবাড়ী উপজেলার আছমতপুর গ্রামের শহিদুল ইসলামের পুত্র শরিফ বাবু (৯)।
ঐ মাদরাসার দায়িত্বরত শিক্ষক হাফেজ মো: মেহেদী হাসান জানান,
ঐ দিন ভোরে ফজরের নামাজ শেষে সকল ছাত্রদের পড়তে বসতে বলি এবং তখন দেখতে পাই ঐ তিনজন ছাত্র নেই।
এ ব্যাপারে আমি স্থানীয় ধাপেরহাট পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রে একটি সাধারন ডায়েরী করেছি। যাহার নং ৩৪৬।
নিখোঁজ হওয়া রবিউলের পিতা রশিদুল জানান, এলাকার ১০/১১টি মাদরাসা এতিম খানায় খোঁজ নিয়েছি,মাইকে প্রচারনা চালিয়েছি।
এখন পর্যন্ত আমার সন্তানের কোন সন্ধান পাই নাই। নিখোজ হওয়া ঐ তিন ছাত্রের পরিবারে চলছে উদ্দেগ উৎকন্ঠাসহ নানামুখি গুঞ্জন।
স্থানীয় ধাপেরহাট পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের ইনচার্জ রজব আলী জানান, আমি বিষয়টি জানার সাথে সাথেই ঘটনা স্থলে গিয়েছি।
ঐ তিন ছাত্রের সন্ধানের চেষ্টা অব্যহত আছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *